চুলের যত্ন, ত্বকের যত্ন, প্রসাধনী সম্পর্কে, মেকাপ, সৌন্দর্য পরামর্শ

বেবি প্রোডাক্টস-এর দারুণ কিছু ব্যবহার

হ্যালো সাজগোজের বন্ধুরা, নিশ্চই সবাই ভালো আছেন। আপনাদের সাথে একটা মজার বিষয় শেয়ার করি, আমি এতটা বড় হয়েছি তাও বেবী কেয়ার প্রোডাক্ট-গুলো মার্কেট-এ দেখলে আমার খুব কিনতে ইচ্ছা করে এবং মাঝে মাঝে কিনেও ফেলি। কারণ, বেবি-দের কেয়ার বাদেও এদের অনেক ধরনের ব্যবহার আছে যে!

বেশ কিছুদিন আগে আপনাদের সাথে বেবি অয়েল এবং বেবি পাউডার-এর কিছু অসাধারণ ব্যবহার সম্পর্কে জানিয়েছিলাম।

আজ এসেছি, এই দুটো বাদে বেবি কেয়ার প্রোডাক্টস-এর আরো কিছু হ্যাকস জানাতে। তো চলুন, জেনে নেই।

 

১. মেকআপ ব্রাশ ডার্টি হয়ে গেছে? কিন্তু হাতের কাছে ভালো ব্রাশ ক্লিনার নেই? তবে কিভাবে নোংরা ব্রাশ-গুলো ক্লিন করবেন? কোনো ব্যাপারই না, যদি হাতের কাছে বেবী শ্যাম্পু থাকে।

প্রথমের ব্রাশের ব্রিসেলস পানি দিয়ে ভিজিয়ে নিন। এবার,ব্রাশের ব্রিসেলস-এর উপরে একটু বেবি শ্যাম্পু নিয়ে, ব্রিসেলস ম্যাসাজ করুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। ব্যস!!! এটা খুবই মাইল্ড হওয়ার কারণে আপনার ব্রাশের ব্রিসেলস-এর কোনো ক্ষতি করবে না।

২. এবার যে হ্যাক-টির কথা বলবো, সেটা আমার অল টাইম ফেভারিট। সেটা হলো মেকআপ রিমুভিং-এর ক্ষেত্রে বেবি ওয়াইপস-এর ব্যবহার। বেবি ওয়াইপস-এর মাধ্যমে খুব সহজ ভাবেই মেকআপ রিমুভ করা যায়। প্রথমে মেকআপ রিমুভার মুখে লাগিয়ে ম্যাসাজ করে নিয়ে এরপর বেবী ওয়াইপস দিয়ে মুছে নিতে হবে সমস্ত মেকআপ। এরপর ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

৩. আপনার স্কিন যদি সেনসিটিভ হয় তবে আপনি আপনার বডি ময়েশ্চারাইজার হিসেবে নিশ্চিন্তে বেবী লোশন ব্যবহার করতে পারবেন।কারণ, এটি বেবি-দের স্কিনের কথা চিন্তা করে বানানো হয়, তাই এটা আপনার জন্যে সেইফ এবং ভালো কাজ করবে।

৪. অনেক সময় শেভিং এবং ওয়্যাক্সিং-এর পরে স্কিন জ্বালাপোড়া এবং ইরিটেট করে। এই সমস্যা সমাধানে শেভিং অথবা ওয়্যাক্সিং-এর পরে ব্যবহার করুন বেবি লোশন।

৫. চুলে শ্যাম্পু করা তো আমাদের হেয়ার কেয়ার রুটিনের মধ্যে অন্যতম। তবে নরমাল শ্যাম্পু গুলোতে প্রচুর ক্ষতিকর কেমিক্যাল থাকায় সেগুলো চুলের জন্যে খুব একটা ভালো নয়। তাই আপনি ব্যবহার করতে পারেন বেবি শ্যাম্পু। এটা বেবি-দের জন্যে তৈরি বলে এতে ক্ষতিকর কেমিক্যাল নেই এবং এটা ব্যবহারে চুল সফট এবং ড্যামেজ ফ্রি হয়। আমি পারসোনালি বেবি শ্যাম্পু ব্যবহার করেছি এবং এটা সত্যিই ভালো কাজ করে।

৬. ক্লাস/ অফিস/ হ্যাংআউট-এতো আমরা যাই-ই। তবে সবসময় ফাউন্ডেশন লাগাতে কি ইচ্ছা করে? কিন্তু মুখে তো একদম কিছু না লাগালেই নয়। তখন যেটা করতে পারেন, অল্প একটু ফাউন্ডেশন নিয়ে এর সাথে সমপরিমাণ বেবি লোশন মিক্স করে নিয়ে পুরো মুখে হাতের সাহায্যে লাগিয়ে নিন। ব্যস, ঝটপট আপনি বিবি ক্রিম-এর ফিনিশিং পেয়ে যাবেন এবং ভারীও লাগবে না।

৭. অনেক সময় দেখা যায় সাধের চুড়িগুলো হাতে ঢুকতে চাচ্ছে না, অথবা অনেক দিন কানে ইয়ারিং পড়েন নি। ফলে কানে নতুন করে ইয়ারিং পড়তে গেলে ঢুকতেই চায় না। এক্ষেত্রে, চুড়ির বেলায় হাতে এবং ইয়ারিং-এর বেলায় কানের ফোঁড়ানো ছিদ্রে বেবী লোশন/ বেবি পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে নিন। এতে করে চটজলদি সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে।

৮. সেলেব্রিটি-দের হাত পায়ের দিকে খেয়াল করলে দেখবেন তাদের স্কিন কতটা চকচকে। এখন এই চকচকে স্কিন আপনিও পেতে পারেন। এজন্যে, প্রথমে স্কিন শেভ করে নেয়া উচিত।

এরপর, ১ চা চামচ বেবি লোশনের সাথে পরিমাণমত লুজ হাইলাইটার মিশিয়ে নিন খুব ভালোভাবে। এরপর সেটা বডি লোশন-এর মত হাতে পায়ে ব্যবহার করলেই আপনিও তেমন চকচকে স্কিনের অধিকারী হয়ে যাবে।

এই তো ছিল, বেবী প্রোডাক্টস-এর কিছু দারুণ হ্যাকস। আশা করছি আগের দুটো আর্টিকেলের মত এটিও আপনাদের ভালো লাগবে এবং উপকারে আসবে।

 

লিখেছেন- জান্নাতুল মৌ

Comments

comments

Recommended