ত্বক, প্রসাধনী সম্পর্কে

বেবি অয়েলের ১০টি অজানা ব্যবহার

বেবি প্রোডাক্ট গুলোর প্রতি আমার সবসময়ই কেমন জানি আকর্ষণ কাজ করে। বেবি প্রোডাক্ট গুলো বেবিদের জন্য কেনা হলেও এগুলো বড়দের জন্যেও বেশ ভালো কাজ করে। এইজন্যে বেবি প্রোডাক্ট গুলো ব্যবহার করা আমার অনেক আগে থেকেই অভ্যাস হয়ে গেছে। বেবি প্রোডাক্ট গুলোর মধ্যে অন্যতম হল বেবি অয়েল। বেবি অয়েলে তেমন বেশী ক্ষতিকর কেমিক্যাল নেই। এছাড়াও বেবি অয়েলে প্রচুর ভিটামিন, মিনারেলস ইত্যাদি রয়েছে।যা স্কিনের জন্যে খুবই জেন্টল এবং উপকারী।

বেবি অয়েল শুধুমাত্র যে বেবির শরীরে ম্যাসাজের জন্যে, তা কিন্তু নয়। বেবি অয়েলের যে অনেক ব্যবহার এবং বেনিফিট রয়েছে, তা কিন্তু আমাদের অনেকেরই অজানা। তো চলুন, আর কথা না বাড়িয়ে বেবি অয়েলের ৯টি দারুণ ব্যবহার জেনে নিই।

(১) ইউথফুল গ্লোয়িং স্কিন পেতে বেবি অয়েল বেশ কাজে দেয়। একটি বাটিতে ১ চা চামচ এলোভেরা জেল, ১ চা চামচ বেবি অয়েল এবং হাফ চা চামচ গোলাপজল নিয়ে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে মুখ পরিষ্কার করে নিয়ে এই মিশ্রণটি থেকে একটু খানি নিয়ে আপনার ফেইস এ ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। পরদিন সকালে মুখ পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার লাগাবেন। কয়েকদিন ব্যবহারে আপনি নিজেই পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

(২) হাত পা শেইভিং করার ফলে আমাদের স্কিন বেশ রুক্ষ হয়ে যায়। তাই শেইভিং এর সময় শেইভিং ক্রিম হিসেবে ব্যবহার করুন বেবি অয়েল। ট্রাস্ট মি, এতে আপনার স্কিন রুক্ষ তো হবেই না বরং অনেক বেশী সফট এবং স্মুদ হয়ে যাবে।বেবি

(৩) বেবি অয়েলের এখন যে ব্যবহারটির কথা বলব, সেটা আমার সবসময়কার ফেভারিট। বিশেষ করে শীতকালে তো বটেই। অনেকেই অভিযোগ করেন, ফাউন্ডেশন লাগালে ন্যাচারাল লাগে না, কেকি মনে হয়।ফাউন্ডেশন লাগানোর আগে হাতে ঢেলে নিন এবং এর মধ্যে ১ ফোঁটা বেবি অয়েল যোগ করুন। ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে এরপর ফেইস এ অ্যাপ্লাই করুন এবং ব্লেন্ড করে নিন। এই ট্রিকস টি ফলো করলে আপনার ফাউন্ডেশন ন্যাচারাল লাগবে এবং লং লাস্টিংও হবে। অনেকেই ভাবতে পারেন, ফেইস তেলতেলে হয়ে যাবে কিনা অথবা যাদের অয়েলি স্কিন তারা ব্যবহার করতে পারবে কিনা। একদম ই চিন্তা করার কারণ নেই। আমার স্কিন ও অয়েলি এবং এটা ফেইস এ অয়েলিনেস বাড়াবে না।

(৪) হেয়ার গ্রোথ ট্রিটমেন্ট এর জন্যে বেবি অয়েল অনেক বেশী উপকারী। একটি বাটিতে ২ চা চামচ বেবি অয়েল, ১ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল এবং ২ টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল কেটে নিয়ে মিশিয়ে নিন। এই অয়েল টা চুলের গোড়ায় ১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। ২ ঘন্টা পর শ্যাম্পু করে নিন। এই অয়েলটি ম্যাসাজের ফলে স্কাল্পে ব্লাড সার্কুলেশন বৃদ্ধি পায় যা হেয়ার গ্রোথ কে প্রোমোট করতে সাহায্য করে।

(৫) সফট এবং পিংক লিপস পেতে কে না চায়! একটি ছোট বাটিতে ১ চা চামচ বেবি অয়েল, হাফ চা চামচ চিনি, ২-৩ ড্রপ বীটরুটের জুস নিয়ে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি রাতে শোয়ার আগে ঠোঁটে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে নিন এবং যে কোনো লিপবাম লাগিয়ে নিন। এই লিপ স্ক্রাব টি ব্যবহারের ফলে লিপস সফট এবং পিংক হয়ে উঠবে।

(৬) অনেকেই আছেন, যারা এক্সপেনসিভ মেকাপ রিমুভারের পেছনে অনেকগুলো টাকা ইনভেস্ট করতে চান না।  দিনশেষে মেকাপ তো রিমুভ করতেই হবে। বেবি অয়েল হতে পারে আপনার পারফেক্ট বন্ধু। একটি কটন প্যাডে বেবি অয়েল নিয়ে হালকা ম্যাসাজ করে মুখের মেকাপ তুলে নিন। এটি আই মেকাপ তুলতেও বেশ কার্যকরী। বেবি অয়েল স্কিনের মেকাপ রিমুভ করার পাশাপাশি, মেকাপের ফলে হওয়া স্কিনের ড্রাইনেস দূর করে স্কিনকে সফট বানিয়ে দিবে।

(৭) পা ফাটা নিয়ে তো অনেকেই চিন্তিত। আচ্ছা, পা ফাটা দূর করতে বেবি অয়েল ব্যবহার করে দেখেছেন কি? যদি আপনার উত্তর না হয়, তবে আজই একবার ব্যবহারর করে দেখুন। প্রতিদিন রাতে শোয়ার আগে পায়ের গোড়ালিতে বেবি অয়েল নিয়ে ম্যাসাজ করুন। আশা করছি, পায়ের ফাটা ভাব দূর হবে।

(৮) লং টাইম ময়েশ্চারাইজিং স্কিন পেতে, গোসল শেষে ত্বক হালকা ভেজা অবস্থায় বেবি অয়েল লাগিয়ে নিন হালকা ম্যাসাজ করে।

(৯) অনেক সময় শখ করে কেনা নতুন জুতোজোড়া পরতে গেলে পায়ে ফোস্কা পড়ে যায়। এর থেকে মুক্তি পেতে আগের দিন রাতে জুতার যে অংশ থেকে ফোস্কা পড়ার চান্স আছে , সেই অংশে কিছুটা বেবি অয়েল লাগিয়ে রেখে দিন। এতে পরদিন নতুন জুতোজোড়া আশা করছি আপনাকে আর কষ্ট দিবে না।

(১০) বেবি অয়েল কিন্তু আপনি আপনার নেইল কিউটিকল অয়েল হিসেবেও ব্যবহার করতে পারবেন এবং এটা সত্যিই অসাধারণ কাজ করে। অল্প একটু বেবি অয়েল নিয়ে নখে লাগিয়ে ম্যাসাজ করে নিন।

ছবি – ইউটিউব ডট কম

লিখেছেন – জান্নাতুল মৌ

Comments

comments

Recommended