ব্রাইডাল, সম্পাদকের পছন্দ, সৌন্দর্য পরামর্শ

বিয়ে পরবর্তী রূপচর্চা

খুব ধুমধাম করে তো বিয়ের পর্ব শেষ হয়ে গেল! আর এই বিয়েকে ঘিরে নানা প্রস্তুতির সাথে সাথে তো স্কিনের কেয়ার টাও ঠিক মতোই নিয়েছিলেন আশা করি। নয় তো বিয়েতে তো আর সুন্দর লাগার সম্ভবনাটুকুও শেষ হয়ে যেত। ভাবচ্ছেন বিয়ের ঝামেলা শেষ এখন আর কি হাফ ছেড়ে বাঁচলেন তো! আসলে এই সময় তা আর বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতায় একগাদা মেকাপ, হেয়ার স্টাইল এসবের কারণে ত্বক এবং চুল দুটোই প্রাণ খুলে শ্বাস নিতে পারে না। তাই বিয়ের সময় অনেক গর্জিয়াস এবং সুন্দরি বউ মেকাপ তোলার পরেও যেন একই রকম সৌন্দর্য বজায় রাখতে পারেন তাই নিয়ে আজ কিছু কথা হবে।

শুরুতেই বিয়ের পরে কীভাবে যত্ন নিবেন তা নিয়ে বলার আগে প্রথমে আসা যাক হলুদের পর্বে। এই দিন তো খুব একটা মেকাপ না নেয়া হলেও হলুদ সামান্য হলেও ছোঁয়া হয়। স্কিনে হলদেভাবের কারণে বেশির ভাগ সময় মেকাপ করলে দেখতে ভালো লাগে না। তাই গায়ে হলুদের প্রোগ্রাম শেষ করার পর আপনি নেমে পড়ুন এই হলদে ভাব তোলার যুদ্ধে!!

হলুদ শেষে শাড়ি চেঞ্জ করে বড় গলার ম্যাক্সি পড়ে নিন। মেকাপ রিমুভার দিয়ে মেকাপ তুলে নিন। এবার এমন একটি প্যাকের কথা বলব যেটা ত্বক থেকে হলদে ভাব তুলে দিতে সাহায্য করবে এবং ত্বকে ইনস্ট্যান্ট গ্লো এনে দিবে।

এর জন্য যা যা লাগবে-

  • কোকোনাট মিল্ক ২ চা চামচ
  • লেবু ১ চা চামচ
  • টক দই ১ চা চামচ
  • মধু ১/২ চা চামচ
  • র মিল্ক ১ চা চামচ
  • চালের গুঁড়ো ৩ চা চামচ

সব উপকরণ মিশিয়ে নিন। এবার মেকাপ তোলার পর মুখ, ঘাড়, হাত-পা  ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এবার পরিষ্কার মুখে-ঘাড়ে- হাতে-পায়ে পুরো প্যাক লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। প্যাকটি একটু ভেজা ভেজা অবস্থায় হাতের তালুতে সামান্য র মিল্ক নিয়ে মুখ এ হালকা করে ম্যাসাজ করতে থাকুন দেখবেন মেকাপ রিমুভের পরেও আরো রেসিডিউ বেরিয়ে আসছে। এভাবে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। ব্যস এবার ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। তারপর মেহেদী লাগাতে বসে পড়ুন। একটি কথা,  এই প্যাকটি কিন্তু কেবল হলদে ভাব দূর করতেই নয় ত্বকে গ্লো এনে দিবে নিয়মিত ব্যবহারে। কাজেই বিয়ের পরে আপনি চাইলে এই প্যাক ইউজ করে যেতে পারেন।

রাতটা কেটে গেলেই তো রিসিপশনের প্রস্তুতির পালা। সময় মতো পার্লারে যাওয়ার আগে ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে অবশ্যই সানস্ক্রিন মেখে বের হবেন। মেকাপ করতে বসে খেয়াল করেছেন নিশ্চয়ই ত্বকের উপর একগাদা প্রোডাক্ট অ্যাপ্লাই করা হয়েছে। আর এই দিনটিতে চুলও তো বাদ যায় না! স্ট্রং হেয়ার স্প্রে, টিজ, কার্ল করা স্বাভাবিক হলেও চুলের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাই বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে যখন নতুন বাড়িতে উঠবেন তখন নিশ্চয়ই হুট করে রান্না ঘরে ঢুকে প্যাক বানিয়ে মুখে লাগিয়ে বসে থাকতে পারবেন না! তাই লাগেজে নারকেল তেল, লোশন, চালের গুঁড়ো, মুলতানি মাটি, মধু এমন কিছু উপাদান একটি বক্সে গুছিয়ে রেখে নিবেন আগে থেকেই।

রাতে শোবার আগে মেকাপ তুলে চালের গুঁড়োর সাথে সামান্য পানি মিক্স করে স্ক্র্যাব করে নিন। এবার মুলতানি মাটির সাথে মধু এবং লেবুর রস মিক্স করে মুখে লাগিয়ে নিন। ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন  এরপর ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে ঘুমোতে চলে যান। এই প্রক্রিয়াটি খুব সহজ এবং অল্প উপকরণেই সম্ভব তাই বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সপ্তাহে ১ দিন এই প্যাকটি কন্টিনিউ করতে থাকুন।

রাতে চুলের জট ছাড়াতে গিয়ে চুলের সর্বনাশ করে বসবেন না যেন। চুল থেকে ক্লিপ কাটা খুলে নারকেল তেল নিয়ে চুলে লাগিয়ে নিন। ভালো করে লাগাবেন। এরপর কিছুক্ষণ সময় নিন। তারপর দেখবেন একাই সিঁথি কেটে তেল স্ক্যাল্পেো লাগাতে পারছেন। এভাবে সারা রাত রেখে দিন। পরদিন সকালে উঠে চুলে হালকা করে চিরুনি বুলিয়ে নিন। তারপর সাধারণ নিয়মে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন।  এরপর ২ দিন গ্যাপ দিয়ে চুলের জন্য প্রোটিন প্যাক লাগিয়ে নিন।

  • ঘন কোকনাট মিল্ক ২ চা চামচ
  • ১ টি ডিম
  • মধু – ১ চা চামচ
  • কলা ৩ চা চামচ

ভালো করে মিক্স করে নিন। পুরো চুলে লাগিয়ে ১৮ মিনিট রেখবেন। পুরোপুরি শুকাতে দিবেন না। তাহলে শ্যাম্পু করলেও কলা যেতে চাবে না। তাই ১ কাপ পানিতে ২ চা চামচ শ্যাম্পু গুলিয়ে নিন। এই তরল শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। ব্যস হয়ে গেল চুলের যত্ন! এতো ধকলে চুলের যে খারাপ অবস্থা হওয়ার কথা ছিল তা আর হবে না।

বিয়ের পর সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন স্ক্র্যাবিং, ত্বকের ধরণ অনুযায়ী ফেইস প্যাক এবং ময়েশ্চারাইজিং অবশ্যই অ্যাপ্লাই করবেন। নিয়মিত ত্বকের যত্ন নিলে কিন্তু খুব বেশি উপকরণের প্রয়োজন পড়ে না। নিজের ত্বকের যত্ন নিন বিয়ের আগের সৌন্দর্য ধরে রাখুন বিয়ের পরেও।

মডেল – আকিফা রাহমান অন্ধি

লিখেছেন – নীলা

Comments

comments

Recommended