চুলের যত্ন, সৌন্দর্য পরামর্শ

ন্যাচারাল হেয়ার টনিক!

আচ্ছা চুল পড়ে না এমন কেউ কি আছেন? আমার তো মনে হয় যে এমন কেউ নেই যার একদমই চুল পড়ে না। আমাদের সবারই প্রতিদিন কম বেশি চুল পড়ে। প্রতিদিন ৫০-১০০ টা চুল পড়া স্বাভাবিক বলেই ধরে নেয়া হয়। কিন্তু যখন চুল পড়ার পরিমাণ এর থেকেও বেশি হয়ে যায় তখন আর স্বাভাবিক বলে তা ধরে নেয়া যায় না।

আপনি কি জানেন যে, লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কারণে তাদের চুল হারায়? অনেক সময় দেখা যায়, হঠাৎ করেই চুল পড়ার পরিমাণটা অনেক বেশি বেড়ে যায়। অসুস্থ্যতার কারণে অনেক সময় এমন হয়। আবার ডায়েট করলে, কোন কারণে অনেক বেশি ঔষধ খেতে হলে কিংবা বাচ্চা হলেও চুল পড়ার পরিমাণটা আচমকাই বেড়ে যায়। বংশগত কারণেও অনেক সময় চুল পড়ে। তবে বংশগত কারণে সাধারণত ধীরে ধীরে চুল পড়ে।

চুল পড়ার রয়েছে হাজারো কারণ। অনেক সময় আমরা বুঝতেই পারি না আমাদের চুল পরার আসল কারণটা কি।

  • বংশগত কারণে
  • মেজর কোন সার্জারি হলে
  • হরমনাল ইমব্যালেন্স
  • ক্যানসার ট্রিটমেন্ট এর জন্য
  • অটোইমিউন ডিজিস
  • শিশু জন্মগ্রহণ করলে
  • ওজন কমে গেলে
  • অনেক বেশি স্ট্রেস এর মধ্যে থাকলে
  • আয়রনের অভাবে
  • মেডিকেশন এর জন্য
  • খাওয়ায় তারতম্য ঘটলে

এই সমস্ত নানা কারণে আমাদের চুল পড়তে পারে। আপনি হয়ত চুলে এ পর্যন্ত নানা ধরণের সামগ্রী ব্যবহার করেছেন যেগুলোতে আসলে চুল পরা বন্ধ হওয়ার কথা। কিন্তু কোনটাই প্রকৃতপক্ষে কাজ করেনি। চুল পরা একেবারে বন্ধ করা কার পক্ষেই সম্ভব নয়। তবে যেটা করা যেতে পারে তা হলো চুল গজানোর প্রক্রিয়াকে একটু বুস্ট আপ করা।

এখন আপনাদের সাথে এমন একটি হেয়ার টনিক এর রেসিপি শেয়ার করব যেটি আপনার নতুন চুল গজাতে অনেক বেশি সাহায্য করবে প্রাকৃতিক উপায়ে। অনেক সহজেই মাত্র তিনটি উপাদানে তৈরি করে ফেলতে পারবেন এই হেয়ার টনিক। আসুন তাহলে জেনে নিই কীভাবে তৈরি করবেন মাত্র তিনটি উপাদানে চুল গজানোর এই ম্যাজিকেল হেয়ার টনিক।

ন্যাচারাল হেয়ার টনিক তৈরির উপকরণসমূহ-

  • ক্যাস্টর অয়েল- ২ টেবিল চামচ
  • ডিমের কুসুম- ১ টি
  • মধু- ১ টেবিল চামচ

ব্যবহার করবেন যেভাবে-

  • প্রথমত একটি পাত্রে সবগুলো উপাদান ভালো করে মিশিয়ে নিন। আপনি আপনার চুল অনুযায়ী উপাদানগুলো কম বেশি নিতে পারেন।
  • এরপর স্ক্যাল্পে ভালো করে লাগিয়ে নিন হেয়ার টনিক। এরপর চুলের বাকী অংশেও লাগিয়ে নিন।
  • এরপর একটি শাওয়ার ক্যাপ পরে ২-৩ ঘন্টা অপেক্ষা করুন। আপনি বসে না থেকে ইচ্ছে করলে ম্যাগাজিন পড়তে পারেন অথবা অন্য কোন কাজ করতে পারেন। যাতে করে আপনার বিরক্ত না লাগে।
  • এরপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার দিয়ে নিন।
  • এই টনিকটি সপ্তাহে ১-২ বার ব্যবহার করতে পারেন। ২ মাসের মধ্যেই আপনি আপনার চুলের পরিবর্তন দেখতে পারবেন।

তাহলে আজই বানিয়ে নিন মাত্র তিনটি উপাদান ব্যবহার করে ম্যাজিকেল এই হেয়ার টনিক। আর আপনার চুল করে তুলুন ঘন। আপনিও হতে পারেন তখন কেশবতি কন্যা।

ছবি – লাইফটাইমস্টাইল ডট কম

লিখেছেন – আনিন্তা আফসানা

Comments

comments

Recommended