চুলের যত্ন, সৌন্দর্য পরামর্শ

ঘন কালো চুলের জন্য দারুণ একটি জুসের রেসিপি!

আপনি জানেন যে আনব্যালেন্সড ডায়েট শুধুমাত্র আপনার শরীরের ক্ষতি করে তা না, আপনার চুলের জন্যও এটা ভীষণ ক্ষতিকারক? আর তার থেকেও গুরুত্বপূর্ণ যেটা তা হল, আপনার চুল বেড়ে উঠার জন্য যে পুষ্টিটা দরকার তা কিন্তু আসবে আপনার শরীরের ভেতর থেকেই।

আপনি যদি সুন্দর ও সাস্থ্যসম্মত চুল চান তবে আপনাকে অবশ্যই ভিটামিনযুক্ত খাবার খেতে হবে। সুতরাং আপনি যদি ডায়েট করেন তবে আপনার খাবারের তালিকায় যেন অবশ্যই শাকসবজি এবং ফলমূল থাকে। যেসব খাবারে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন রয়েছে। এতে করে আপনার ডায়েটও হল আবার চুলেরও কোন ধরণের ক্ষতি হল না। বরং আপনার ফিটনেসের সাথে সাথে চুলও হল অনেক বেশি সুন্দর।

জুস এমন একটি খাবার যা অনেক সহজে এবং অতি দ্রুত আপনার শরীরের ভেতর থেকে আপনার ত্বককে করবে সুন্দর। অন্যান্য খাবারের চেয়ে জুস অনেক বেশি তাড়াতাড়ি কাজ করে।

আমি আজ আপনাদের সাথে এমন একটি জুসের রেসিপি শেয়ার করব যা আপনার চুল পড়া কমাবে এবং তার সাথে সাথে আপনার  চুলকে করে তুলবে সুন্দর ও মসৃণ ।

শসা ও গাজরের জুস-

শসা এমন একটি খাবার যাতে রয়েছে পটাসিয়াম, সিলিকা, সালফার, ভিটামিন সি এবং বেটা ক্যারোটিন যা আপনার চুলকে বেড়ে উঠতে সাহায্য করবে। আর গাজর  আপনার চুল পড়ার প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করবে। আসুন তাহলে জেনে নিই কীভাবে তৈরি করবেন এই শসা ও গাজরের জুস-

  • গাজর – ৪ টি
  • শসা – ১ টি
  • আপেল – ১ টি

ভালো করে গাজর, শসা ও আপেল ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। ছোট ছোট টুকরা করে কেটে নিন সবগুলো উপাদান। অল্প পানিসহ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। ব্যস তৈরি হয়ে গেল চুলের জন্য পুষ্টিকর জুস।

কি? দেখলেন তো কত সহজেই হাতের কাছে থাকা জিনিস দিয়েই তৈরি করে ফেলতে পারবেন চুলের জন্য দারুণ পুষ্টিকর জুসটি? আর এই জুসটি শুধুমাত্র যে আপনার চুলের বেড়ে উঠা এবং চুল পরা কমানোর জন্যেই কাজ করছে তা না। আপনার ত্বককেও ভেতর থেকে করে তুলছে অনেক বেশি সুন্দর।

চুলের জন্য আমরা নানা কিছু ব্যবহার করি। অবশ্যই চুলের যত্ন নিতে চুলে বিভিন্ন কিছু ব্যবহারের প্রয়োজন আছে। কিন্তু আসল সৌন্দর্য তখনই নজর কাড়বে যখন ভেতর থেকেই চুল থাকবে স্বাস্থ্যবান । সুতরাং বেশি বেশি জুস খান এবং আপনার চুলকে অনেক কম সময়ে করে তুলুন এতটা সুন্দর এবং হেলদি যাতে সবার নজর কেড়ে নেয়। কম সময়ে হয়ে উঠুন ঘন ও লম্বা চুলের অধিকারী।

ছবি – হ্যারাল্ডএক্সট্রা ডট কম

লিখেছেন – আনিন্তা আফসানা

Comments

comments

Recommended