মেকাপ

জেনে নিন প্রয়োজনীয় কিছু মেকাপ টিপস

মেকাপ করতে গিয়ে আমরা ছোটখাটো নানা সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি। অনেক সময় দেখা যায় ছোট একটা ভুলের জন্য পুরো মেকাপটাই বেমানান লাগছে। আসলে গর্জিয়াস এবং নিখুঁত মেকাপ করতে হলেই যে প্রফেশনাল হতে হবে এমন কোন কথা নেই। ভুলগুলো শুধরে নিয়ে মেকাপের সময় কিছু টিপস অনুসরণ করলে আপনার নিজের মেকাপও হতে পারে নিখুঁত এবং সুন্দর। এবার আসুন তাহলে জেনে নিই, মেকাপের প্রয়োজনীয় কিছু টিপস।

– ঠোঁটে লিপস্টিক দেয়ার আগে ভালো মতো এক্সফোলিয়েট করে নিলে ঠোঁটের মরা কোষ উঠে যায়, যার ফলে লিপস্টিক ভালোমতো বসে। চিনি এবং নারিকেল তেল মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে ঠোঁটে ম্যাসাজ করুন এবং এরপর বেবি টুথব্রাশ দিয়ে হালকা ঘষে ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। ব্যাস, এবার আপনার ঠোঁট লিপস্টিক দেয়ার জন্য রেডি।

– চোখের পাপড়ির ভিতর দিয়ে হালকা করে আই পেন্সিল টেনে নিয়ে চোখের মেকাপ করে তুলতে পারেন একদম ন্যাচারাল। একে বলা হয় “টাইট লাইনিং”। এর ফলে চোখের পাপড়ি আরো ঘন মনে হয় এবং চোখেও আলাদা ডেফিনিশন যোগ করে।

– অনেক সময়ই দেখা যায় আইশ্যাডো পটে কালারটা যত রঙ্গিন এবং উজ্জ্বল লাগছে চোখে দেয়ার পর তেমন লাগছে না বা সঠিক কালারটা ফুটে উঠছে না। এই সমস্যা এড়াতে আইশ্যাডো দেয়ার আগে চোখে প্রথমে সাদা কালারের আই পেন্সিল দিয়ে বেইস তৈরি করে নিন। এরপর আইশ্যাডো দিয়ে দেখুন একদম ঠিক কালার টাই ফুটে উঠেছে আপনার চোখে।

image02

– লিপস্টিকের স্থায়িত্বকাল বাড়াতে লিপস্টিক দেয়ার পর ঠোঁটের উপর টিস্যু রেখে মেকাপ ব্রাশের সাহায্যে টিস্যুর উপর দিয়ে ঠোঁটে পাউডার লাগান। এতে করে ঠোঁটে এক ধরনের ম্যাট ভাব তৈরি হবে এবং লিপস্টিকও অনেকক্ষণ পর্যন্ত থাকবে।

– আই মেকাপ সুন্দর এবং আকর্ষণীয় করার ক্ষেত্রে চোখের কোথায় হাইলাইটার বা সবচেয়ে হালকা কালারের আইশ্যাডো লাগাবেন তা জানা খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাদা, ক্রিম বা অন্যান্য হালকা কালারের আইশ্যাডো সবসময় চোখের ভিতরের কর্নারে, মাঝখানে এবং ব্রো বোনের নীচে লাগাবেন। এতে করে চোখের সাজটা আরো ন্যাচারাল এবং সুন্দর দেখাবে। অন্যান্য গাঢ় কালারের আই শ্যাডো এরপর পাশ দিয়ে লাগিয়ে ভালোমতো ব্লেনড করে নিবেন।

image01

– মুখে ফাউন্ডেশন অ্যাপ্লাই করার সময় ব্রাশ উপরের দিকে না টেনে নীচের দিকে বা ডাউনওয়্যার্ড-ভাবে অ্যাপ্লাই করুন। আমাদের সবার মুখেই ছোট ছোট লোম রয়েছে যেগুলো নীচের দিকে মুখ করে বাড়তে থাকে। ফাউন্ডেশন যদি আপওয়্যার্ড-ভাবে অ্যাপ্লাই করা হয় তাহলে মুখের লোম গুলো দাঁড়িয়ে যায় এবং সেগুলো বেশি চোখে পড়ে। তাই নিখুঁত কভারেজ পেতে ফাউন্ডেশন সবসময় ডাউনওয়্যার্ড-ভাবে অ্যাপ্লাই করুন।

image05

– যাদের চোখ ছোট তারা চোখের ওয়াটার লাইনে কালো আইলাইনার লাগানোর পরিবর্তে সাদা আইলাইনার লাগান। এটি এক ধরনের ইল্যুশন তৈরী করে যার ফলে চোখ খানিকটা বড় মনে হয়। নীচের ছবি দুটো দেখলেই পার্থক্যটা বেশ বুঝতে পারবেন। তাই আপনার মেকাপ কালেকশনে যদি কোন হোয়াইট পেন্সিল বা আইলাইনার না থাকে তবে দেরি না করে কিনে নিন একটি।

ছবি – লিস্টোটিক.কম, হেয়ারস্টাইলসইন্সাইট.কম

লিখেছেন – নাহার

Comments

comments

Recommended