ত্বকের যত্ন

মুখের ত্বকের থেকে গায়ের রঙ কালো ?

আমরা সব সময় মুখের যত্নটা বেশি নিয়ে থাকি। শরীরের বাকি অংশ বলতে গেলে অবহেলাতেই থেকে যায়। আমরা অনেকেই হয়ত জানি না আমাদের হাতের কবজি এবং পা সব চেয়ে বেশি সেনসেটিভ, শরীরের অন্য জায়গা থেকে । হাত, পা খুব তাড়াতাড়ি কালো হয়ে যায় এবং তাড়াতাড়ি ফাইন লাইন পড়ে। মুখের মত হাত, পা ও গলা জামার বাইরে থাকে, তাই রোদে পুড়ে কালো দেখায় মুখের মত। যত্ন নেয়ার অভাবে অনেক সময় মুখের থেকেও বেশি কালো লাগে, যেটা অনেক সময় লজ্জার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। রোদে পুড়লে হাত, পা এমনি শুষ্ক হয়ে যায়। শুষ্কতার জন্য হাত, পা রোদে বেশি পুড়ে। হাত, পা, গলা উজ্জ্বল করার কিছু টিপস দেওয়া হল। আশা করি উপকৃত হবেন।

হাত এবং পাঃ

০১. বাইরে থেকে এসে হাত, পা, ঘাড়ে টক দই লাগাবেন। এতে করে রোদের পোড়া দাগ কমে যাবে।

০২. শুষ্কতার জন্য হাত, পা কালো দেখায়। তাই যাদের স্কিন শুষ্ক তারা গরম হোক আর শীত হোক ১২ মাস হাতে পায়ে ভেসলিন লাগাবেন। কিছুদিন পর লক্ষ করবেন হাত, পা অনেক কোমল, আগের থেকে অল্প হলেও কালচে ভাবটা কমেছে।

০৩. ভিটামিন ই লিকুইড ১ চামচ, ১ চামচ লেবুর রস, ১ চামচ গ্লিসারিন, ৫ চামচ কাঁচা দুধ দিয়ে হাত, পা ম্যাসাজ করবেন গোসল করার আগে। হাত, পা উজ্জ্বল হবে।

০৪. গোসলের পর সরিষার তেল হাত, পায়ে মাখবেন। উপকৃত হবেন।

০৫. ভিটামিন সি ১ চামচ, বাদাম তেল ১ চামচ, এলভেরা জেল ১ চামচ মিশিয়ে হাত পায়ে দিবেন। হাত, পা ফর্সা হবে। রোদে গেলে সানস্ক্রিন ক্রিম লাগাতে ভুলবেন না।

০৬. প্রতিদিন হাত, পা গোসল করার সময় স্ক্রাব করবেন। গোসলের পর ভারী ক্রিম অথবা ভেসলিন লাগাবেন।

০৭. শশার রস, গোলাপজল, গ্লিসারিন মিশিয়ে হাতে পায়ে মাখবেন। হাত পায়ের কালচে দাগ কমবে।

০৮. টমেটো, আলুর রস প্রাকৃতিক ব্লিচিং এর কাজ করে। রস করে হাতে পায়ে লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট।

১০. চন্দন ১ চামচ, মুলতানি মাটি ১ চামচ, হলুদ বাটা ১ চামচ, মধু ১ চামচ , ১ চামচ গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে সপ্তাহে ৩ দিন করে লাগান। ১ মাসে ফলাফল দেখুন।

১১. সপ্তাহে ২ বার না পারলেও কমপক্ষে একবার পেডিকিউর, মেনিকিউর করানো উচিত। পার্লার যাওয়ার সময় নেই?? কোন ব্যাপার না। ঘরে বসে একদম প্রাকৃতিক উপায়ে পেডিকিউর, মেনিকিউর করতে পারবেন। গরম পানিতে লেবু, লবণ (পারলে সি স্লট), mild শ্যাম্পু মিশিয়ে ১৫ মিনিট হাত, পা ভিজিয়ে রেখে পেডিকিউর, মেনিকিউর সেট দিয়ে হাত ও পায়ের ময়লা পরিষ্কার করে, মধু এবং চিনি দিয়ে হাত, পা স্ক্রাব করে, কোন একটি ম্যাসাজ ক্রিম দিয়ে ম্যাসাজ করে যে কোন একটি প্যাক লাগিয়ে ফেলুন, হয়ে গেলো পেডিকিউর, মেনিকিউর। মনে রাখা জরুরী হাত পা পরিষ্কার না থাকলে, মুখের ত্বক যতই সুন্দর থাকুক, আপনি কিন্তু ভেতর থেকে ততটা কনফিডেন্ট থাকবেন না।

১২. লবণ এবং মধু দিয়ে হাত, পা প্রতিদিন ম্যাসাজ করতে পারেন। এতে করে হাত পায়ের ত্বক অনেক নরম হবে।

ঘাড়ঃ

০১. যাদের ঘাড় কালো তারা ১ চামচ উপটান, ৬ চামচ কাঁচা দুধ, আধা চামচ হলুদ বাটা দিয়ে প্যাক বানিয়ে ঘাড়ে লাগান। এতে করে ঘাড়ের কালচে ভাব দূর হবে।

০২. উপটান আর গোলাপজল দিয়ে প্যাক বানিয়ে ঘাড়ে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

০৩. দেশি ঘি, এলাচি, ভিটামিন সি ক্যাপসুল, ভিটামিন সি ক্যাপসুল, চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে ঘাড়ে লাগান ২০ মিনিটের জন্য।

০৪. ভিটামিন বি কমপ্লেক্স সিরাপ প্রতিদিন দুবার খান।

সঠিক যত্নে যেকোনো জিনিস-ই আগের থেকে ভালো হয়। তবে একদিনে কোন কিছু থেকেই ভালো ফলাফল পাওয়া যায় না। মুখের মত হাত, পা, ঘাড়ের যত্ন প্রতিদিন না হলেও সপ্তাহে ২ বার নেয়া উচিত। আশা করি পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে। ধন্যবাদ।

লিখেছেনঃ তাপসী

মডেলঃ জীতু আফরিন

Comments

comments

Recommended

1 Comment

  • nasrin July 24, 2013 at 2:27 pm

    ama hat n pa onak kalo moker tolonai.r kalo chope dak porese akon ke korle ai kalo chope dak chole jabe n brith hobe.

    Reply

Leave a Comment

*