স্বপ্নসূচনা

বাচ্চা নিতে ইচ্ছুক মায়েদের জন্য অতি জরুরী কিছু পরামর্শ

আমাদের সামাজিক জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো পরিবার।একজন মহিলা ও পুরুষ যখন নতুন সংসার শুরু করে তখন তারা নানা স্বপ্ন দেখে।সন্তান ছাড়া একটি পরিবার সম্পূর্ন হয় না।একটি দম্পতি সংসার শুরু করার পরেই সন্তানের অভাববোধ করেন।এটাই জগতের নিয়ম। কিন্তু একটি সংসারে নতুন অতিথি আসার আগে অনেক প্রস্তুতির প্রয়োজন পড়ে।একটি সুস্থ ও সবল বাচ্চার স্বপ্ন দেখে  সব দম্পতিরাই ।তাই স্বপ্নের সূচনা যেন ভালোভাবে হয়, তাহলে স্বপ্নটি পূরণ হবার সম্ভাবনাও বেশী থাকে।

বলা হয়ে থাকে একটি সার্থক গর্ভধারণ,গর্ভধারণ করার আগেই বিভিন্ন প্লানের উপর নির্ভর করে। সব মহিলাই উপকৃত হতে পারেন যদি গর্ভধারণের আগের প্লান সম্পর্কে প্রাথমিক জ্ঞান থাকে।আসুন জেনে নেওয়া যাক, গর্ভধারণের আগে কি কি প্রস্তুতি নেয়া দরকার।

মানসিক প্রস্তুতি:

আপনি ও আপনার স্বামী যখন গর্ভধারণের চেষ্টা করবেন,তখন মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিবেন, আপনারা এখন সন্তান চান কিনা? সন্তানের দেখভাল করার মত লোকজন ও পর্যাপ্ত পরিমাণ সময় আছে কিনা? ক্যারিয়ারের গঠনের মাঝে সন্তান নিলে সামলাতে পারবেন কিনা? দু জনের মাঝে ভালো বোঝাপড়া আছে কিনা?মানসিকভাবে বর্তমানে আপনি বিপর্যস্ত কিনা? এই প্রশ্নগুলো নিজেকে করুন।যদি হ্যাঁবাচক উত্তর পান তবে বুঝতে হবে যে আপনি মানসিকভাবে প্রস্তুত।যদি না বাচক উত্তর পান তবে গর্ভধারণের চেষ্টা করার আগে আরও ভালোমতো ভেবে নিন।

আর্থিক প্রস্তুতি :
যদিও বলা হয়ে থাকে অর্থই অনর্থের মূল।তারপরও অর্থ ছাড়া জীবন অচল।তাই আপনার পরিবারে কোন নতুন অতিথিকে আনতে চাইলে তার ভবিষ্যতটা যতটা পারেন সুরক্ষিত করার চেষ্টা করবেন।কেননা সন্তান পালন বর্তমান যুগে অনেক ব্যয়সাপেক্ষ।তাই গর্ভধারণ করার ইচ্ছা থাকলে আগে অর্থনৈতিক দিকটাও ভেবে দেখবেন।একটা প্লানও করে নিতে পারেন।একটা ফিক্সড ডিপোজিট অথবা ইন্সুরেন্স করিয়ে নিতে পারেন গর্ভধারণের আগে।এতে আপনার অনাগত সন্তানের ভবিষ্যত সিকিউর থাকবে।এছাড়া একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমানো উচিত্‍ গর্ভধারণের চেষ্টাকালীন সময়ে।কেননা গর্ভাবস্থায়,বাচ্চা প্রসবকালীন ও বাচ্চা জন্মদানের পরবর্তী অবস্থায় অর্থের দরকার হয়।

শারীরিক প্রস্তুতি:

মেডিকেল চেকআপ :আপনি কি খুব শ্রীঘ্রই বাচ্চা নিতে চাচ্ছেন?যদি বাচ্চা নিতে চান তবে গর্ভধারণের জন্য একটা বিশেষ সময়ের পরিকল্পনা করুন। এরপর মেডিকেল চেকআপ করুন।এতে করে আপনি জানতে পারবেন যে,বাচ্চা নেয়ার জন্য আপনার শরীর প্রস্তুত কিনা? কেনোনা একটি স্বাস্থ্যবান বাচ্চা জন্মদেওয়া একটি সুস্থ ও স্বাস্থ্যবান মায়ের উপর নির্ভর করে।এজন্য প্রি কন্সেপসন,প্রি প্রেগনেন্সি চেক আপ বা গর্ভধারণ করার আগের চেকআপটা করে নেওয়া উচিত্‍।কেনোনা কিছু মেডিকেল কন্ডিশন ও জীবনযাত্রার মান গর্ভধারণকে প্রভাবিত করে, এমনকি গর্ভধারণ করার ক্ষমতাকেও প্রভাবিত করে।

কি কি চেকআপ করাবেন?
যদি আপনি সন্তানধারণের চেষ্টা করেন এবং আগে জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার চিকিত্‍সককে বলুন কবে নাগাদ তা বন্ধ করবেন? সাধারণত গর্ভধারণ করার চেষ্টা করার কিছু মাস আগে থেকেই জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিটি বন্ধ করতে বলেন ডাক্তাররা।আপনার কিছু স্বাভাবিক মাসিক হওয়া দরকার গর্ভধারণের আগে।এতে করে গর্ভধারণ পরবর্তী বাচ্চা প্রসবের সময় নির্ধারণ করতে সুবিধা হয়।

স্বাস্থ্য ও অন্যান্য পরীক্ষা করুন।আপনার কোন রোগ থাকলে তা সারিয়ে নেয়ার চেষ্টা করবেন।এমনকি আপনার স্বামীর কোন অসুখ থাকলেও তার চিকিত্‍সা করাতে হবে।এরপর ডাক্তার আপনার শারীরিক কিছু পরীক্ষা যেমন ,ওজন ,রক্তচাপ ,ও আপনার নিতম্ব স্বাস্থ্যবান কিনা তা পরীক্ষা করবেন।কেননা খুব ছোট ও চাপা নিতম্বে বাচ্চা জন্মের সময় জটিলতা দেখা দেয়।তাই আগে থেকেই পরীক্ষা করা থাকলে প্রসবকালে আপনার ডাক্তার সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নিবেন।

এরপর ডাক্তারটা পরীক্ষা করবেন যে,আপনি সন্তান ধারণ করতে পারবেন কিনা?মানে বন্ধ্যা কি না তা পরীক্ষা করেন।অনেক কারণে একটি দম্পতি বন্ধ্যা হতে পারে।মহিলা ,পুরুষ উভয় ই এর জন্য দায়ী হতে পারে।এজন্য যথাযথ পরীক্ষা করে সমস্যা ধরা পড়লে,যার সমস্যা তার চিকিত্‍সা করাতে হবে।

প্যাপ টেস্ট করাতে হবে,জরায়ুমুখে কোন সমস্যা আছে কিনা তা জানার জন্য।কেনোনা একটি সার্থক প্রসব সুস্থ জরায়ু ও গর্ভাশয়ের উপর নির্ভর করে।এছাড়াও ডায়াবেটিস,উচ্চরক্তচাপ আছে কিনা তা পরীক্ষা করতে হবে।কারণ এইসব অসুখ মারাত্মক সমস্যা করে গর্ভাকালীন ও পরবর্তী সময়ে।তাই গর্ভধারণের আগেই এগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করুন ও ডাক্তারের পরামর্শ মেনে চলুন।এছাড়া HIV ও herpes এই টেস্ট গুলো করা ভালো কেনোনা এগুলো থাকলে গর্ভধারণ করা ঝুকিপূর্ণ।

এছাড়াও আপনি যদি দ্বিতীয় বারের মত মা হতে যান এবং আপনার যদি আগের
গর্ভকালীন অবস্থায় নিম্নোক্ত সমস্যা হয়ে থাকে,
.বাচ্চা নষ্ট হয়ে যাওয়া
.জন্মের সময় বাচ্চা মরে যাওয়া
.অকালে বাচ্চা হওয়া
.বাচ্চার শারিরীক গঠনে সমস্যা থাকা

এইসব হয়ে থাকলে পরবর্তী বাচ্চা নেওয়ার সময় আপনাকে আরো সচেতন হতে হবে ও চিকিত্‍সকের পরামর্শমত গর্ভধারণ করতে হবে।

আপনার ও আপনার স্বামীর পরিবারে কোন জেনেটিক সমস্যার কারণে কারো অসুখ হলে,একজন জেনেটিক কাউন্সিলারের সাথে পরামর্শ অবশ্যই করবেন।

এজমা,ডায়াবেটিস,ডিপ্রেসনের ও অন্যান্য কোন ওসুধ খাওয়ার অভ্যাস থাকলে গর্ভধারণের চেষ্টা করার সময়ই এগুলো খাওয়া থেকে বিরত থাকুন এবং চিকিত্‍সকের পরামর্শ নিন।কেননা এতে সন্তান বিকলাঙ্গ হবার চান্স থাকে।

রুবেলা,চিকেন পক্স এর টিকা আগেই নিয়ে রাখুন।এছাড়া ১৫ বছরের পর সব মেয়েরি
টিটি টিকা নেওয়া উচিত্‍।যে কোন ভ্যাক্সিন নেয়ার কমপক্ষে ১ মাস অপেক্ষা
করুন গর্ভধারণের চেষ্টা করার জন্য।

দাঁতের যত্ন নিন।দাঁতের সমস্যা হলে একজন ডেন্টিস্ট কে দেখান।কারণ এটা প্রমাণিত যে দাঁতের মাড়ীতে কোন অসুখ থাকলে কমওজনের ও অকালে জন্ম হয় শিশুর।

একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

আপনার যদি ২৮ দিন অন্তর রেগুলার মাসিক হয় তাহলে মাসিক হওয়ার ১০ তম দিন থেকে ১৮ তম দিনে গর্ভধারণের চেষ্টা করলে গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে আর যাদের অনিয়মিত মাসিক হয় তারা তাদের সবচেয় কম সময় যেই মাসিক হয় সেই সময়ের সাথে ১৮ বিয়োগ করে ও সবচেয়ে বেশী সময়ে যে মাসিক হয় তার সাথে ১০ বিয়োগ করে তার ওভুলেশন ডেট গণনা করতে পারে ।যেমন কারো যদি ২৬ থেকে ৩১ দিন অন্তর অন্তর মাসিক হয় তাহলে ২৬-১৮=৮ এবং ৩১-১০=২১ অর্থাত্‍ তার মাসিক হবার ৮তম দিন থেকে ২১ তম দিনে গর্ভধারণের চেষ্টা করলে তা সফল হবার সম্ভাবনা বেশী থাকে ।

এছাড়াও আপনার ডাক্তারকে কিছু প্রশ্ন অবশ্যই জিজ্ঞাসা করবেন ,
১.কখন জন্মনিয়ন্ত্রন পদ্ধতি বন্ধ করবেন ?
২.ওভুলেশনের ডেট ক্যালকুলেট করে নিবেন ।
৩.কি কি উপসর্গ দেখে বুঝবেন যে আপনি প্রেগন্যান্ট ।

সাধারণত মাসিক না হওয়া ,স্তন বড় হয়ে যাওয়া ,সকালে বমি বমি ভাব হওয়া এগুলো দেখে বুঝা যায় ।এরপর সিউর হওয়ার জন্য প্রেগনেন্সি টেস্ট করাতে হবে ।

আপনার দেখা স্বপ্নটি বাস্তবায়নের জন্য সচেতন হন ।জানুন ।এবং মেনে চলুন ।

লিখেছেনঃ লীলাবতী লিমা

Recommended


Comments

comments

32 Comments

  • md shamim August 7, 2014 at 12:54 am

    আমি জানতে চাই গর্ভ নিশ্চিত হওয়ার পর নিয়মিত সহবাস করলে গর্ভপাত হওয়ার কোন সম্বাভনা থাকে কি?দয়া করে জানাবেন । অথবা সহবাসে কোন নিয়ম মেনে চলত হবে না কি?

    Reply

  • Afroza October 20, 2014 at 6:08 pm

    Amar 20-25 days porpor means hoi.tahle kivabe productivity time count korbo.20 theke 18 minus korle to 2 din hoy.

    Reply

  • shimu amir October 20, 2014 at 7:24 pm

    Ami jante chai period hobar 20din por pregnancy test korle er result jodi negative hoy tobe ta ki poroborti 10din por positive hote pare???please please answer me..I m in trouble..

    Reply

  • alam November 9, 2014 at 1:54 am

    গভর্ অবস্থায় কি ঋতুস্রাব হয়?

    Reply

  • riya April 24, 2015 at 10:34 pm

    Ame onek cesta korce but bacca conceive korcy na.AME ki north pare?

    Reply

  • suman June 24, 2015 at 11:19 pm

    Tell about dait chart of pregnant woman’s

    Reply

  • purnima July 27, 2015 at 10:07 pm

    amar boyos 23 .amar 2 bocor doray bea hoicay but baby hoccay na. Ami bear por koydin peel khaia matha guray senseless hoa jai.ar por ar khai ne. Ami baby nitay chai akhon ki korbo

    Reply

  • রাজু August 18, 2015 at 7:17 pm

    মাসিক হবার ৭দিন আগে মিলন করচি এই সময় কি বাচ্চা হবার কুন সম্বয়াবনা আচে,

    Reply

  • rizin November 26, 2015 at 8:33 pm

    Amr period er date 22 tarikh….ekhon koy tarik theke sex korle amader baby howar sombabona ache

    Reply

  • SURAIYA AHMED February 2, 2016 at 5:42 pm

    Meyeder Pregnancy te suitable kisu Shampoo, facewash, cream er nam bolben which is organic or chemical free

    Reply

  • dn shubrata February 11, 2016 at 11:47 pm

    আমার বিয়ের ২/৫ বছররপার হয়ে গেলো। কিন্তুু বেবি কনসেপ্ট হচ্ছে না। আমার ডান পাশের টিউব ব্লক।তাছারা আমরা দুজনের কোন সমস্যা নেই।ডাক্তার বলছে হবে। কিন্তু হচ্ছে না, অনেকদিন হলো, প্রিজ একটা সলিউশন দিন।প্লিজ।

    Reply

  • sohan April 9, 2016 at 7:02 pm

    Period হবার কত দিন পর সহবাস করলে সঠিক ভাবে বাচ্চা নিতে পারব।pls একটু জানান

    Reply

  • রিমা আক্তার April 21, 2016 at 11:20 pm

    আমি বাচ্চা নিতে চাই কিন্তু আমার মাসিক অনিয়মিত হয় ।(40,60 দিন পরে ও এটা হয়)কি যে করি ???

    Reply

  • AKTER HOSSAIN May 18, 2016 at 11:33 pm

    আমি জানতে চাই?
    মাসিক হয়ার কয়দিন পর মেলামেসা করলে বাবু হবে

    Reply

  • আতোয়ার রহমান June 5, 2016 at 12:57 pm

    মাসিক অব্সায় সহবাস করলাম বাচ্চা হওয়ার সম্ভব আছে কি?

    Reply

    • sub-editor June 6, 2016 at 9:55 am

      মাসিক চলাকালিন সময় সহবাস স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এই একটু মেইন্টেইন করে চলা উচিত। অনেক ক্ষেত্রে এই মিন্সট্রুয়াল সাইকেল চলাকালিন সহবাস করলে বাচ্চা হওয়ার সম্ভবনা থাকে।

      Reply

  • Suzana June 18, 2016 at 7:41 pm

    আমার প্রায় ৩ মাস আগে বাচ্চা নষ্ট হয়। এখন আমি আবার কনসিভ করেছি। এবং বাচ্চা নিতে চাই। এতে কি আমার বা আমার বাচ্চার কোনো ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা আছে? আমার আগের বাচ্চাটা ৯ সপ্তাহে নষ্ট হয়। পরে তা ওয়াস না করে ঔষধ খেয়েছিলাম।

    Reply

  • তানভীর November 2, 2016 at 9:47 am

    আমার আপু অনেক চেষ্টা করেও বেবি হয় না। অনেক চিকিৎসা করেও কিছুই হয়নি। আমাকে পরামর্শ দিন?

    Reply

  • proy January 11, 2017 at 7:04 pm

    Amar bou ke pagnet ,
    Neja ki kora barite chak korbo,

    Reply

  • forhad January 21, 2017 at 6:01 pm

    আমার বিয়ের প্রায় ৭ বছর পেরিয়ে গেল। কিন্তু একটা বাচ্চার মুখ দেখতে পারলাম না। এখন কি করলে এর সমাধান হবে যদি বলেন খুবই উপকার হবে

    Reply

  • Anwar February 2, 2017 at 1:17 am

    Amr wife ar baby hoiche 6 months holo, ekon o period hocchena…… ar koakdin age amader miloner somoy mistake hoiye geche…… ekon ki amr wife ar baby howar possibility ache???

    Reply

Leave a Comment

*