মেকাপ, হাল ফ্যাশন

চাকরির ইন্টারভিউয়ের সাজ-পোশাক!

চাকরির সাক্ষাৎকার/ ইন্টারভিউ অনেকের জন্যই একট ভীতিকর ব্যাপার। বিশেষ করে প্রথমবারের মত ইন্টারভিউ বোর্ড ফেইস করতে যাওয়ার মত নার্ভাস ব্যাপার কম-ই আছে! অনেকে বলেন যোগ্যতাই বড়, আবার অনেকে বলেন যত যোগ্যতাই থাকুক নিজেকে ঐ ৫ মিনিটে সঠিকভাবে উপস্থাপন করতে না পারলে কিছুই সম্ভব না। আমার মনে হয় দুটোই অনেক জরুরী। যারা ইন্টারভিউ বোর্ডে জাজ হিসাবে থাকেন তারা আসলে এমনই হয়ে থাকেন যে পাঁচ মিনিট কথা বলেই বুঝে ফেলতে পারেন আপনি আসলেই যোগ্য কিনা, বা আপনাকে দিয়ে কাজটি হবে কিনা। তবে 1st impression always lasts long. আপনি যোগ্য, সাথে আরেকজনও যোগ্য, এই অবস্থায় আপনি যদি নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে না পারেন তাহলে অন্যজন সেই Advantage টা পাবে বৈকি। তাই ইন্টারভিউ এর জন্য related topics এ সম্পূর্ণ প্রস্তুতি যেমন জরুরী, তেমনি খুব জরুরী পোশাক নির্বাচন-ও।

ছেলেদের জন্য ইন্টারভিউ এর পোশাক নির্বাচন করা খুব সহজ। সাদা রঙ এর ফর্মাল শার্ট, কালো প্যান্ট – আর বড় জোর চুল আঁচড়িয়ে নেওয়া, ব্যস হয়ে গেলো।কিন্তু আমাদের দেশে মেয়েদের যেহেতু ফর্মাল ওয়্যারের ব্যাপারে কোন কোড নেই , সালোয়ার কামিজ-ও হতে পারে ফর্মাল, শাড়িও হতে পারে, সেখানে কোন পোশাকটি, কোন রঙ টি এসব টুকিটাকি সিদ্ধান্ত সঠিকভাবে নেওয়াটা জরুরী।আমার মনে হয় সালোয়ার কামিজই সবকিছু মিলিয়ে ইন্টারভিউ এর জন্য সুবিধাজনক এবং এপ্রোপ্রিয়েট। ম্যাটেরিয়ালটা পরুন সুতি বা মিক্সড বা এখনকার ট্রেন্ড লিলেন। কিন্তু খেয়াল রাখুন পাথর, চুমকি, পুতির কাজ, ভারী কারুকাজের জামা যেন না হয়। পরতে পারেন সুন্দর প্রিন্টের কোন লন বা সুতার কাজ করা গলায় হাতায় এমন। রামপুরার রাস্তায় Executive wear বলে একটি দোকান রয়েছে, ঘুরে আসতে পারেন দোকানটি চাইলে, অফিসে পরার মত ড্রেস পেয়ে যাবেন আশা করি।

রঙ পছন্দ করাটি হচ্ছে একটি খুব কঠিন কাজ।আপনার সাজ-পোশাক এমন হওয়া চাই যাতে আপনাকে আর দশজনের চেয়ে আলাদা লাগে, কিন্তু কখনই যেন উগ্র না লাগে। আলাদা লাগাটা যেন পজিটিভ দিক থেকে হয়। একটু ডিপ বেগুনী, বা কালো পরতে পারেন, বা ডিপ ব্লু, চেষ্টা করুন। একটু গাঢ় রঙ পরলে ভালো কিন্তু চোখে বিরক্ত লাগে এমন রঙ নয়। ম্যাজেন্টা বা পার্পেল বা কট কটা লাল বা কমলা এসব রঙ না পরাই ভালো।আমার মনে হয় সাজটা যত হালকা হয় তত ভালো, ন্যাচারাল ভাবে নিজেকে সাজিয়ে তুলুন। ফেইস পাউডার, চিকন করে কাজল। চাইলে একদম ন্যাচারাল ব্রাউন ম্যাট কালারের শ্যাডো দিতে পারেন, হালকা করে মাসকারা যাতে বেশি বেশি মনে না হয়।লিপস্টিক হবে ন্যাচারাল ব্রাউন, বা ন্যাচারল পিঙ্ক। চুলটা পরিপাটি করে বেঁধে যাওয়া ভালো, তাই বলে কলা বেনী করে চলে গেলেন এমন না। ফেইস কাটে ভালো লাগে এমনভাবে চুল বেঁধে নিন যাতে আপনাকে অগোছালো না মনে হয়। হাঁটার সময় পায়ে শব্দ হয় এমন স্যান্ডেল অবশ্যই পরবেন না। নখ অবশ্যই পরিপাটি করে কেটে যাবেন। হালকা গোলাপি নেইল পলিশ দিতে পারেন যদি চান। ওড়নাটা পিন আপ করে নেওয়া ভালো।

বোনাস টিপসঃ

* প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অবশ্যই ফাইলে সুন্দর করে গুছিয়ে নিয়ে যাবেন, কোন কাগজ দেখতে চাইলে যেন সাথে সাথে বের করে দিতে পারেন।
*আপনি ইঞ্জিনিয়ারিং লাইনের হলে সাথে নিয়ে যান থিসিস বই টি।
*কোনকিছু না জানলে সরাসরি বলুন যে এই মুহূর্তে মনে পড়ছে না বা এই সম্পর্কে শুনি নি কখনো, মনে রাখবেন যারা ইন্টারভিউএর জাজ তাঁরা সঠিক উত্তর জানেন, আপনি না জেনে ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা সাথে সাথেই ধরে ফেলবেন এবং এই ধরণের আচরণ নিশ্চয়ই পছন্দ করবেন না। যদি কোন প্রশ্নের উত্তর সরাসরি না জানেন কিন্তু কাছাকাছি অন্য টপিক সম্পর্কে জানেন তাহলে প্রশ্নকর্তাকে বলুন এটি স্পষ্ট না জানলেও আমি এর কাছাকাছি এই টপিকের ব্যাপারে জানি। সোজা বাংলায় সৎ থাকুন, নিজের এবং অন্যের প্রতি- honesty is always the best policy.

লেখাটি আপনার জীবনে কিছুটা হলেও কাজে দিবে এই প্রত্যাশায় শেষ করছি। সবার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা। সবার শেষে থাকলো একটি সেম্পল সাজ IMG_20130116_161802

লিখেছেনঃ তাসিয়া

Recommended


Comments

comments

1 Comment

  • Lisa August 7, 2014 at 7:55 pm

    এত সহজ সুন্দর করে সাজেশ্ন দেয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ

    Reply

Leave a Comment

*