ঘরকন্না

ঘরকন্নায় গুরুত্বপূর্ণ দশ টিপস

আপনার রান্নাঘর সম্পর্কে কিছু গুরুত্ব্পূর্ণ টিপস জেনে নিন

একঃ

রান্নার সময়ে পাত্রের তলদেশে খাদ্যদ্রব্য আটকে যাওয়া থেকে এবং গরম তেল বাইরে ছিটকে পড়া থেকে রেহাই পেতে হলে সামান্য পরিমান লবন ছিটিয়ে দিন।

দুইঃ
অসাবধানতা বশত তরকারিতে লবন বেশি দিয়ে ফেললে একদলা মাখানো ময়দা ছেড়ে দিন। তরকারি নামানোর আগে ময়দার দলাটি তুলে নিন দেখবেন লবনের মাত্রা কমে গেছে।

তিনঃ

অনেক সময় পোলাও রান্না করতে গেলে দেখা যায় একটু বেশী নরম বা প্যাচপ্যাচে হয়ে যায় তখন নিজের কাছে খুবই খারাপ লাগে। একটি পরিষ্কার শুকনো তোয়ালে বিছিয়ে তার উপরে পোলাওগুলো ঢেলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে দেখুন পোলাওগুলো কেমন ঝরঝরে হয়ে যায়!

চারঃ

ফ্রেঞ্চফ্রাই বাচ্চাদের অনেক প্রিয় একটা খাবার। এটি তৈরী করার আগে কিছুক্ষণ ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে তারপর শুকিয়ে ভাজলে তা অনেক বেশী মচমচে ও অধিক স্বাদের হয়।

পাঁচঃ
নেতিয়ে যাওয়া লেটুস পাতা তরতাজা করতে হলে একটু আলুর খোসা ছাড়িয়ে কুচিকুচি করে লেটুস পাতা সহ ঠান্ডা পানিতে ছেড়ে দিন দেখবেন কেমন তরতাজা হয়ে উঠেছে।

ছয়ঃ

ফ্রিজ দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে এক টুকরো লেবু কেটে ফ্রিজে রেখে দিন। দেখবেন ফ্রিজে আর কোন গন্ধ থাকবেনা। তবে ফ্রিজ নিয়মিত পরিষ্কার করতে ভুলবেন না।

সাতঃ

দুধ ফেটে যাওয়ার ভয় থাকলে জ্বাল দেবার আগে সামান্য পরিমাণ খারাব সোডা মিশিয়ে দিন।

আটঃ
পেঁয়াজের স্বাদ ও গন্ধ টাটকা পেতে হলে পেঁয়াজ ভাজার আগে ধুয়ে কুচি কুচি করে কেটে দুধে ভিজিয়ে তারপর ভাজতে হবে।

নয়ঃ

দই তাড়াতাড়ি জমাতে হলে দুধে এক চা চামচ কর্ণফ্লাওয়ার মিশিয়ে দিন।

দশঃ

পোকার আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে চাল বা আটা ময়দার পাত্রের মধ্যে একটা তেজ পাতা রেখে সংরক্ষণ করুন।

লিখেছেনঃ সালমা 

Comments

comments

Recommended