হাল ফ্যাশন

যত্নে থাকুক গহনা

গহনা ! নামটা শুনলেই আনন্দে নেচে ওঠে প্রত্যেকটা মেয়ের মন ।গহনা কারনা পছন্দ ?ছোট্ট মেয়েটি থেকে দাদীমা ,সবার কাছেই সমান আদরের ।তাই আজকে গহনার যত্ন নিয়ে কিছু কথা বলব ।

সোনার গহনা

সোনার গহনা খুব সহজে কালচে না হলেও নোংরা হয় খুব সহজেই ।তাই আপনার প্রিয় সোনার মূল্যবান আংটি,ব্রেসলেট,নেকলেস এবং অন্য জুয়েলারীগুলো পরিষ্কার করতে পারেন নিচের পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে ।

১.একটি পাত্রে হালকা গরম পানি আর কিছু পরিমাণ তরল ডিটারজেন্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান ।
২.এইবার গহনাগুলো ১৫মিনিট ডুবিয়ে রাখুন এই মিশ্রনে ।
৩.একটি নরম টুথব্রাশ দিয়ে আস্তে আস্তে ঘসে ময়লা পরিষ্কার করুন ।
৪.এরপর পরিষ্কার হালকা গরম পানিতে ধুয়ে উঠিয়ে নিন ।
৫.সবশেষে একটি নরম পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে শুকিয়ে ফেলুন ।

এছাড়া সোনার গহনা অনেকদিন ব্যবহারে উজ্জ্বলতা হারালে গহনার দোকানে গিয়ে আবার পলিশ করিয়ে আনলে ,গহনা তার আগের উজ্জ্বলতা ফিরে পায় ।

রুপার গহনা

বর্তমানে রুপার গহনা বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ।বিশেষ করে সোনার আকাশচুম্বী দামের কারণে ।কিন্তু রুপার গহনাগুলো খুব তাড়াতাড়ি কালচে বা লালচে হয়ে পড়ে ।তাছাড়া রুপার উপরে সোনার প্রলেপ দেয়া গহনাগুলোতেও ছোট ছোট দাগ দেখা যায় ।রুপার গহনা তুলো ,টিস্যু বা মখমখলজাতীয় নরম কাপড়ে মুড়ে রাখলে অনেকদিন ভাল থাকে ।তবে কালচে ভাব হলে জুয়েলারীর দোকানে গিয়ে সিলভার পলিশ করলে আগের উজ্জ্বলতা ফিরে পাওয়া যায় ।হালকা লালচে হলে বাড়িতে একটি আলুমিনিয়ামের পাত্রে লবণ আর সোডা মিশিয়ে তাতে ২মিনিট রুপার গহনা চুবিয়ে ,নরম ব্রাশ দিয়ে ঘসে ,হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ,নরম পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে শুকাতে হবে ।

লক্ষ্য করুন :

১.গহনাগুলো ঘর্ষণ ,তীক্ষ্ন কিছুর আঘাত,রাসায়নিক পদার্থ,খুব গরম বা খুব
ঠান্ডা,বাতাস এবং সূর্যের আলো থেকে দূরে রাখুন ।
২.গহনা পড়া শেষে সুতির কাপড় দিয়ে মুছে নিন যাতে এতে কোন মেকআপ বা স্কীন
অয়েল লেগে না থাকে ।এরপর তুলে রাখুন ।
৩.গহনাগুলো আলাদা আলাদা পাতলা সুতি কাপড়ে মুড়ে রাখুন ,যাতে একটার সাথে আর
একটা ঘসা না খায় ।
৪.ঘরের কাজ করার সময় গহনা খুলে রাখা ভাল ।
৫. মেকআপ ও হেয়ার স্প্রে করার পর গহনা পড়া উচিত্‍ ।কারণ এগুলোতে যেসব
ক্যামিকেল থাকে তা গহনার জন্য ক্ষতিকারক ।
৬.সুইমিং পুল বা সমুদ্রে সাঁতারের আগে এবং গরম পানিতে গোসলের আগে গহনা
খুলে রাখা উচিত্‍ ।
৭.নিয়মিত গহনা পরিষ্কার রাখুন ।

লিখেছেনঃ লিলাবতী লিমা

Recommended


Comments

comments

1 Comment

Leave a Comment

*